বিজনেসে কোনো লস নাই

কথাটা শুনে নিশ্চয় একটা ধাক্কা খেলেন। ভাবছেন, এ আবার কেমন বিজনেস ? নিশ্চয়ই এর মাথা খারাপ হয়ে গেসে, অথবা বিজনেসটাই হয়তো অবৈধ। হয়তো স্মাগলিং টাইপ কিছু। না ভাই, একদমই না। যা পড়োছেন, ঠিকই। কোনো বিজনেসে কোনো লসই নেই, এবং বিজনেসটাও অবৈধ হওয়ার প্রয়োজন নেই। বৈধ যেকোনো বিজনেসের ক্ষেত্রে এই কথা সত্য।

এখন ভাবছেন , “ভাই, এত কথা শুনতে তো আসি নাই। কিভাবে লসলেস বিজনেস করা যায়, এইটা আগে বলেন”। হ্যা, এটা বলব। তবে তার আগে আপনিই আমাকে বলুন, লাভ বলতে আসলে আমরা আসলে কি বুঝি। ১০ টাকার প্রোডাক্ট ১২-১৫ টাকা দামে সেল করলে, ২-৫ টাকা বেশি যে পাচ্ছি, এটাই আমার লাভ, তাইতো ? যদি এমনটা ভেবে থাকেন, তবে ভুলটা এখানেই। আসলে , বিজনেসে লাভ শুধু টাকা দিয়ে পরিমাপ করলে ভুল হবে।

আপনি আপনার প্রোডাক্ট যে সবসময় যে প্রোডাকশন কস্ট এর চেয়ে বেশি দামে বিক্রি করতে পারবেন, এমনটা নাও হতে পারে। ১০ টাকার প্রোডাক্ট যদি ৮টাকায় সেল হয়, সেক্ষেত্রে কেন ২ টাকা কমে সেল করতে হল, ঘাটতিটা কোথায়, কাস্টমারের চাহিদার সাথে কোন পয়েন্টে প্রোডাক্টের ঘাটতি আছে যে কারণে কাস্টমার ১০টাকায় কিনতে আগ্রহী হচ্ছে না এগুলা নিয়ে আপনার তখন স্টাডি করা লাগবে। এই স্টাডি করে যা পাবেন তাইই  হল আপনার অভিজ্ঞতা।

এখন পরবর্তী বার যখন এই প্রোডাক্ট নিয়ে আবার ব্যবসা করতে যাবেন, তখন ঐ অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে ঐ প্রোডাক্টটিকে কাস্টমারে চাহিদার উপযোগী করে তবেই তো ব্যবসা শুরু করবেন, তাই  না ? সুতরাং এক্ষেত্রে অভিজ্ঞতা হল একটা ইনভেস্টমেন্ট, প্রথমবার যেটির অভাব ছিল। আর প্রথমবারের বিজনেসে আপনি ২ টাকা দিয়ে ঐ অভিজ্ঞতাটাকেই কিনে নিয়েছেন বলতে পারেন। সুতরাং প্রথমবারও আপনারও ওভারঅল লস হয়নি, আপনি ইন রিটার্ন কিছু পেয়েছেন, আর তা হল অভিজ্ঞতা।

এই অভিজ্ঞতাই অনেক বড় একটা এসেট, যেটা আমরা অনেক সময় আমলে নেই না। অনেকেই আছেন, যাদের কাড়ি কাড়ি টাকা আছে, কিন্তু  অভিজ্ঞতা নেই। শুধু এই টাকার জন্যই তারা বিজনেসে নামতে অত্যুৎসাহী হয়ে যান। পরবর্তীতে যখন আর্থিক লস খান, তখন ভেংগে পড়েন বা রণে ভংগ দেন। অথচ উনি যে অভিজ্ঞতাটা অর্জন করলেন, তা দিয়ে তিনি  আবার শুরু করতে পারতেন।

বিজনেস করতে গেলে অভিজ্ঞতার প্রয়োজন আছে, এবং তা mandatory । আমার বর্তমান আইটি  বিজনেসের পাশাপাশি রেস্টুরেন্ট বিজনেসেরও আগ্রহ একসময় ছিল, এবং সেই আগ্রহ থেকে একটা মাস সরাসরি ফিল্ডওয়ার্কও করি। হুম, অবশ্যই আর্থিক লসের সম্মুখীন হই, কিন্তু ওই এক মাসে যে শিক্ষা/অভিজ্ঞতাটা আমি অর্জন করেছি, তা হাজার বই পড়েও পাওয়া সম্ভব হত না। যা হোক, সে ঘটনা আরেকদিন বলা যাবে। J

পরিশেষে একটি সমীকরণ দিয়ে এই  লেখাটা শেষ করি।

ধরি, রুটি একটি  প্রোডাক্ট, যার বিক্রয়মূল্য ৬ টাকা। এই সমীকরণ দেখে একটু খটকা লাগলেও  লাগতে পারে। তবে তা অন্য কোনো লেখায় আলোচনা করব। J

কাঁচামাল + শ্রম + সময় + অভিজ্ঞতা = ৬ টাকা।

Mithu A Quayium
CEO & Founder
CyberCraft

(We are a software company in Bangladesh working as distributed one to provide softwares, ecommerce, management systems, websites as solutions around the world)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × 1 =